দেশের সবাইকে ডিএনএ ডাটাবেজে অন্তর্ভুক্ত করার সুপারিশ

বাংলাদেশের সব মানুষকে ডিএনএ ডাটাবেজে অন্তর্ভুক্ত করার কাজ দ্রুতগতিতে সম্পন্ন করার বিষয়ে সুপারিশ করেছে সংসদীয় কমিটি। একইসঙ্গে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে অতিসত্বর শিশু অধিদপ্তর নামে একটি নতুন অধিদপ্তর গঠন এবং প্রতিটি উপজেলায় শিশু একাডেমীর শাখা সম্প্রসারণের সুপারিশ করা হয়।

বৃহস্পতিবার জাতীয় সংসদ ভবনে অনুষ্ঠিত মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির ১১তম বৈঠকে এসব সুপারিশ করা হয়। বৈঠকে সভাপতিত্ব করেন কমিটির সভাপতি মেহের আফরোজ চুমকি।

কমিটির সদস্য এ. এম নাঈমুর রহমান, শবনম জাহান, লুৎফুন নেসা খান ও সৈয়দা রাশিদা বেগম অংশগ্রহণ করেন।
সংসদের গণসংযোগ বিভাগ জানায়, বৈঠকে মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির ২য় বৈঠকে কিশোর-কিশোরী ক্লাব প্রকল্পের কার্যক্রম পর্যবেক্ষণ করে কীভাবে এ কার্যক্রম আরও গতিশীল ও ফলপ্রসূ করা যায় এ সংক্রান্ত ১ নং সাব-কমিটির প্রতিবেদন এবং ২ নং সাব-কমিটির দেওয়া ডিএনএ ল্যাবের কার্যক্রম পর্যবেক্ষণ ও করণীয় নির্ধারণ এবং শিশু একাডেমি আইন বাস্তবায়ন ও অন্যান্য কার্যক্রম পর্যবেক্ষণ প্রতিবেদন বৈঠকে উপস্থাপিত হয়। এসব প্রতিবেদন পর্যালোচনা করে দীর্ঘমেয়াদী পরিকল্পনার মাধ্যমে (১০-২০ বছর) বাংলাদেশের সব মানুষকে ডিএনএ ডাটাবেজে অন্তর্ভুক্ত করার কাজ দ্রুতগতিতে সম্পন্ন করাসহ অন্যান্য সুপারিশ করা হয়। এছাড়া কমিটির সদস্যদের কিশোর-কিশোরী ক্লাবগুলোর প্রাপ্য সুবিধাদি সরেজমিনে পরিদর্শনের জন্য মন্ত্রণালয়কে ব্যবস্থা গ্রহণের সুপারিশ করা হয়।

বৈঠকে মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সচিবসহ সংশ্লিষ্টরা কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

Print Friendly, PDF & Email

Related Articles

Back to top button