চট্টগ্রামে চালু হলো জিম-এর প্রথম সার্ভিস সেন্টার

এই সার্ভিস সেন্টারটি নতুন এবং বিদ্যমান গ্রাহকদের সেবা দিতে প্রস্তুত

জিম ডিজিটাল ট্রাক সম্প্রতি চট্টগ্রামের ডি.টি রোড, তমিজ ম্যানসন, কদমতলীতে তাদের প্রথম সার্ভিস সেন্টার চালু করেছে। গত ১লা সেপ্টেম্বর, বুধবার, এই সার্ভিস সেন্টারটি উদ্বোধন করে জিম।

উদ্বোধনকালে উপস্থিত ছিলেন জিমের সিনিয়র জেনারেল ম্যানেজার ইয়াসিন ফিদা হোসেনসিনিয়র মার্কেটিং ম্যানেজার আবরার আহসান চৌধুরীঅ্যাসিস্ট্যান্ট মার্কেটিং ম্যানেজার তানিম আহমেদআজিজ গ্রুপের এজিএম জনাব রফিকুল ইসলাম চৌধুরী ও অন্যান্য কর্মকর্তা-কর্মচারীবৃন্দ। জিমের প্রতিনিধিদের বাইরেও উপস্থিত ছিলেন ট্রাক ও এজেন্সি মালিকগণ, চালক ও জিমের সেবা গ্রহণকারী কর্পোরেট প্রতিষ্ঠানগুলোর কর্মকর্তারা।

এজেন্সি মালিক জনাব সালাউদ্দিন বলেন, “বন্দরনগরী চট্টগ্রাম থেকেই দেশের অধিকাংশ জায়গায় প্রয়োজনীয় মালামাল সরবরাহ হয়ে থাকে। আমরা যারা জিমের সাথে পণ্য পরিবহনে সম্পৃক্ত ও যারা নতুন যুক্ত হতে চাই, জিম-এর এই সার্ভিস সেন্টার থেকে এখন খুব সহজেই প্রয়োজনীয় সেবাটি নিতে পারব।”

উল্লেখ্য, পণ্য পরিবহনের অ্যাপভিত্তিক সেবা জিম ডিজিটাল ট্রাক ২০১৯ সালে আনুষ্ঠানিকভাবে যাত্রা শুরু করে। যাত্রার শুরু থেকেই আধুনিক প্রযুক্তির মাধ্যমে উন্নত সেবা নিশ্চিত করে গ্রাহকদের সন্তুষ্টি অর্জন করেছে জিম।

উল্লেখ্য, “পণ্য পরিবহনে প্রযুক্তি” এই স্লোগান নিয়ে বাজারে আসার পরপরই বিশ্বমানের সেবা ও নিরাপদ পরিবহন নিশ্চিত করে জিম – ডিজিটাল ট্রাক অ্যাপটি ব্যবহারকারীদের মাঝে ব্যাপক সাড়া ফেলে। বর্তমানে এক লক্ষ টনেরও বেশি ধারণক্ষমতা নিয়ে সারা বাংলাদেশে জিমের রেজিস্টারকৃত প্রায় বারো হাজার ট্রাক রয়েছে। বাংলাদেশে প্রচলিত সব ধরণের ট্রাকই পাওয়া যাবে জিম অ্যাপে। বিভিন্ন ধারণক্ষমতার এই ট্রাকগুলো প্রতিনিয়ত পণ্য নিয়ে ছুটে চলেছে দেশের বিভিন্ন প্রান্তে। জিমের সকল গ্রাহক এবং ট্রাক মালিক/চালক ভেরিফাইড হওয়ার কারণে পণ্য পরিবহন নিয়ে উভয় পক্ষই থাকেন নিশ্চিন্ত। একজন কাস্টমার জিমে ট্রিপ তৈরি করা মাত্রই বিভিন্ন ট্রাক মালিক কিংবা চালক সেই ট্রিপটির জন্য বিড করেন। গ্রাহক পছন্দের বিড বাছাই করলেই ট্রাক চলে আসবে তার দোরগোড়ায়।

Print Friendly, PDF & Email

Related Articles

Back to top button