ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা রেড ক্রিসেন্ট ইউনিটের উদ্যোগে  দৃষ্টিপ্রতিবন্ধীদের মাঝে এাণ সামগ্রী বিতরণ

প্রেস রিলিজ

ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার বাসিন্দা দৃষ্টিপ্রতিবন্ধী হেলাল মিয়ার পরিবারের সদস্যের সহায়তায় এগিয়ে এসেছে জেলা রেড ক্রিসেন্ট ইউনিট। পরিবারটির নয়জনই দৃষ্টিপ্রতিবন্ধী। আর এর মধ্যে আটজনই জন্মান্ধ। ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা রেড ক্রিসেন্ট ইউনিট এর চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ্ব শফিকুল আলম, এম.এসসি এর নির্দেশনায় ও ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা রেড ক্রিসেন্ট ইউনিটের উদ্যোগে জেলার সদর উপজেলার নাটাই উত্তর ইউনিয়নের রাজঘর গ্রামের দৃষ্টিপ্রতিবন্ধী অতিদরিদ্র হেলাল মিয়ার (৫৯) পরিবারের মাঝে ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ করা হয়।

জেলা রেড ক্রিসেন্ট ইউনিট কর্তৃপক্ষ জানায়, বাংলাদেশ রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটির জাতীয় সদর দপ্তরের সহযোগিতায় দৃষ্টি প্রতিবন্ধী এই পরিবারের প্রতিটি সদস্যকে ত্রাণ সামগ্রী হিসেবে জনপ্রতি সাড়ে ৭ কেজি চাল, ১ কেজি ডাল, ১ লিটার সয়াবিন তেল, ১ কেজি লবন, ১ কেজি চিনি ও আধা কেজি সুজি দেওয়া হয়েছে।
আজ ০৮ সেপ্টেম্বর বুধবার সকাল  ১১ টার দিকে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা রেড ক্রিসেন্ট ইউনিট কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা রেড ক্রিসেন্ট ইউনিট এর মাননীয় চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ্ব শফিকুল আলম, এম.এসসি। এসময় ব্রাহ্মণবাড়িয়া রেড ক্রিসেন্ট ইউনিটের ইউনিট লেভেল কর্মকর্তা খ: এনায়েতুল্লাহ একরাম পলাশ, ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রেস ক্লাবের দপ্তর সম্পাদক ও সাবেক যুব প্রধান শাহজাহান সাজু, পিএস টু চেয়ারম্যান,জেলা পরিষদ ও জেলা রেড ক্রিসেন্ট ইউনিট শরিফুল আলম, ইউনিটের হিসাবরক্ষক মো: আরিফুর রহমান মনির, যুব প্রধান তানভীর রশিদ, সমাজসেবী আসিফুল আলমসহ ইউনিটের যুব ও স্বেচ্ছাসেবকরা উপস্থিত ছিলেন।
প্রধান অতিথি ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা রেড ক্রিসেন্ট ইউনিট এর  চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ্ব শফিকুল আলম, এম.এসসি বলেন, ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা রেড ক্রিসেন্ট ইউনিট জেলার অসহায়,দরিদ্র,প্রতিবন্ধীসহ সমাজের সব শ্রেণী পেশার মানুষের কল্যাণে কাজ করে যাচ্ছে। দৃষ্টিপ্রতিবন্ধী অসহায় হেলাল মিয়ার পরিবারের সহয়তায় এগিয়ে আসা তাঁর একটি উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত।
তিনি বলেন, কোভিড-১৯ এ ক্ষতিগ্রস্ত জেলার অসহায় ও নিম্ন আয়ের পরিবারের সহযোগিতায়ও শুরু থেকেই কাজ করে যাচ্ছে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা রেড ক্রিসেন্ট ইউনিট। কোভিড-১৯ আক্রান্ত মুমূর্ষু রোগীদের জন্য বিনামূল্যে অক্সিজেন সিলিন্ডার সেবা প্রদান, ত্রাণ সহায়তা কার্যক্রম, জনসচেতনতাবৃদ্ধি, টিকাদান কার্যক্রমে স্বাস্থ্যকর্মীদের সহযোগিতা, স্বাস্থ্যকর্মী, ব্যবসায়ী ও সাধারন জনগনের মাঝে স্বাস্থ্য সুরক্ষা উপকরণ বিতরণ (মাস্ক ও হ্যান্ডস্যানিটাইজার) করাসহ ইউনিটের প্রশিক্ষিত যুব ও স্বেচ্ছাসেবকরা রাতদিন কাজ করে যাচ্ছে।
ত্রাণ সামগ্রী গ্রহণের পর অন্ধ হেলাল মিয়া তাঁর প্রতিক্রিয়ায় বলেন, করোনার এই সময়ে পরিবার পরিজন নিয়ে চরম কষ্টে দিনযাপন করছি। এই দু:সময়ে রেড ক্রিসেন্টের এই সহায়তা যেন চাঁদকে হাতে পাওয়া। পরিবারের সদস্যরা ভিষন উপকৃত হবে। তিনি বলেন, আমাদের পরিবারের প্রিয়জন জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান শফিকুল আলম স্যার সবসময় এই অন্ধ পরিবারটি পাশে দাঁড়িয়েছে। আমি তাঁর ও জেলা রেড ক্রিসেন্ট ইউনিটের সকল কর্মীদের জন্য প্রাণভরে দোয়া করি।
উল্লেখ্য, ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার সদর উপজেলার নাটাই উত্তর ইউনিয়নের রাজঘর গ্রামের এই দৃষ্টিপ্রতিবন্ধী পরিবারের বসবাস। পরিবার প্রধানের নাম হেলাল মিয়া। তাঁর চার ছেলে ও চার মেয়ে। এদের মধ্যে চার ছেলে, এক মেয়ে, দুই নাতি ও এক নাতনি জন্মান্ধ। এছাড়াও বড় ছেলে সাদেকের দুই সন্তান এবং ছোট ছেলে ফারুকের এক সন্তানও জন্মান্ধ।
বর্তমানে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা শহরসহ আশপাশের বিভিন্ন জেলার প্রত্যন্ত অঞ্চলে গান গেয়ে জীবিকা নির্বাহ করে হেলাল মিয়ার পরিবারের সদস্যরা।
Print Friendly, PDF & Email

Related Articles

Back to top button