কঠিন লড়াইয়ে হায়দরাবাদের কাছে হার ব্যাঙ্গালুরের

একদিকে লিগ টেবিলে তিন নম্বরে থাকা দল, অন্যদিকে লিগ টেবিলের শেষ ডল। কিন্তু আইপিএলের যুদ্ধে তৃতীয় স্থানে থাকা আরসিবিকেই গতকাল বুধবার (৬ অক্টোবর) হারিয়ে দিল সানরাইজার্স হায়দরাবাদ। ম্যাক্সওয়েলের দুর্দান্ত ইনিংস আর শেষদিকে এবি ডি ভিলিয়ার্সের দুরন্ত চেষ্টাও আরসিবিকে জেতাতে পারল না। বলতে গেলে কেন উইলিয়ামসনের এক থ্রোয়ে ম্যাক্সওয়েলের আউটটাই ম্যাচের মোড় ঘুরিয়ে দিল। আর শেষ পর্যন্ত হায়দরাবাদের দেওয়া ১৪২ রানের লক্ষ্যমাত্রা তাড়া করতে নেমে ১৩৭ রানে থামল ব্যাঙ্গালুরের ইনিংস। উইলিয়ামসনরা ম্যাচ জিতলেন চার রানে। ফলে আইপিএলে ১০০ তম জয় অধরাই রইল আরসিবির।

এদিন টস জিতে প্রথমে ফিল্ডিংয়ের সিদ্ধান্ত নেন রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালুরের অধিনায়ক বিরাট কোহলি। আর শুরুতেই অধিনায়কের সিদ্ধান্তকে সঠিক প্রমাণ করেন গার্টন। ১৩ রান করে ফেরেন হায়দরাবাদের ওপেনার অভিষেক শর্মা। এরপর অবশ্য দলের হাল ধরেন আরেক ওপেনার জেসন রয় এবং অধিনায়ক কেন উইলিয়ামসন। দুইজন মিলে ওই উইকেটে ৭০ রানও যোগ করে ফেলেন। শেষপর্যন্ত এই জুটি ভাঙেন হার্শাল প্যাটেল। ৩১ রানের মাথায় তার বলে বোল্ড হন উইলিয়ামসন।

এরপরই ম্যাচে ফেরে আরসিবি। শেষদিকে অবশ্য রান তোলার এই গতিও আর ধরে রাখতে পারেনি হায়দরাবাদ। উল্টে বেশ কয়েকটি উইকেট হারায় তারা। এর ফলে নির্ধারিত ২০ ওভারে সাত উইকেটে ১৪১ রানই তোলেন উইলিয়ামসনরা। দলের হয়ে সর্বোচ্চ রান করেন জেসন রয় (৪৪)। অন্যদিকে, এদিনও নিজের চার ওভারে ৩৩ রান দিয়ে তিন উইকেট পান হার্শাল প্যাটেল। এছাড়া ড্যান ক্রিশ্চিয়ান দুইটি উইকেট পান।

জবাবে ব্যাট করতে নেমে প্রথম ওভারেই অধিনায়ক বিরাট কোহলি (৫)-এর উইকেট হারায় আরসিবি। দ্রুত ফেরেন ক্রিশ্চিয়ান (১)। এরপর শ্রীকার ভারতও (১২) বেশিক্ষণ ক্রিজে ছিলেন না। কিন্তু এরপরই দেবদূত পাড়িক্কলকে সঙ্গে নিয়ে লড়াই শুরু করে গ্লেন ম্যাক্সওয়েল। একদিক থেকে স্ট্রাইক রোটেট করতে থাকেন পাড়িক্কল। অন্যদিকে, দ্রুত গতিতে রান তোলায় মন দেন ম্যাক্সওয়েল। কিন্তু ২৫ বলে ৪০ রান করার পরই দুর্ভাগ্যবশত রানআউট হন অজি তারকা। এরমধ্যেই অবশ্য ম্যাক্সওয়েল ৩টি চার এবং ২টি ছয়ও মারেন। কিন্তু উইলিয়ামসনের দুরন্ত থ্রোয়ে আউট হন তিনি। পাড়িক্কলও ৪১ রান করলেও খুবই মন্থর ইনিংস খেলেন। শেষদিকে শাহবাজ নাদিম এবং এবি ডি ভিলিয়ার্স চেষ্টা করলেও তা যথেষ্ট ছিল না। নির্ধারিত ২০ ওভারে ৬ উইকেটে ১৩৭ রানেই থেমে যায় আরসিবির ইনিংস।

এই ম্যাচ হারায় ১৩ ম্যাচে আরসিবির পয়েন্ট রইল ১৬ পয়েন্টেই। দুই নম্বরে থাকা ধোনির চেন্নাইয়ের সমসংখ্যক ম্যাচে পয়েন্ট ১৮। নেট রানরেটেও অনেকটাই এগিয়ে চেন্নাই সুপার কিংস। এখন এই পরিস্থিতিতে বিরাটরা তাদের শেষম্যাচে লিগ টেবিলের শীর্ষে থাকা দিল্লিকে বড় ব্যবধানে হারালে এবং চেন্নাই নিজেদের শেষ ম্যাচ বড় ব্যবধানে হারলে তালিকায় দুই নম্বরে চলে আসার সুযোগ পাবে আরসিবি।

সানরাইজার্স হায়দরাবাদ: ২০ ওভারে ১৪১/৭ (জেসন রয় ৪৪, কেন উইলিয়ামসন ৩১, হর্ষল প্যাটেল ৩/৩৩)
রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালুর: ২০ ওভারে ১৩৭/৬ (পাড়িক্কল ৪১, ম্যাক্সওয়েল ৪০, উমরান ১/২১)
সানরাইজার্স হায়দরাবাদ ৪ রানে জয়ী।

Print Friendly, PDF & Email

Related Articles

Back to top button