বাংলাদেশ কিন্ডারগার্টেন স্কুল এন্ড কলেজ ঐক্য পরিষদের উদ্যোগে বিশ্ব শিক্ষক দিবস পালিত


গতকাল ৫ অক্টোবর ২০২১ইং মঙ্গলবার বিকাল ৩ টায় চট্টগ্রাম ল্যাবরেটরী স্কুল এন্ড কলেজ অডিটরিয়ামে বাংলাদেশ কিন্ডারগার্টেন স্কুল এন্ড কলেজ ঐক্য পরিষদ কর্তৃক আয়োজিত বিশ্ব শিক্ষক দিবস উপলক্ষে আলোচনা সভা মোঃ সাইফুল্লা মনিরের সঞ্চালনায় অধ্যাপক হাবীব রহমত উল্লাহ সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত হয়। এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ কিন্ডারগার্টেন স্কুল এন্ড কলেজ ঐক্য পরিষদের চেয়ারম্যান এম ইকবাল বাহার চৌধুরী। বিশেষ অতিথি ছিলেন মহাসচিব মোঃ সাফায়েত হোসেনে, সাংগঠনিক সচিব ইঞ্জিনিয়ার মোঃ শাওন আহমেদ। বক্তব্য রাখেন- মিসেস আমেনা সুলতানা, এ এম ফারুক, অধ্যাপক মোঃ রবিউল হোসেন, মোঃ দেলোয়ার হোসেন, অধ্যাপক মোঃ নাছির উদ্দিন, মোঃ মুজিবুর রহমান, কে এম মনিরুজ্জামান, মোঃ আবু ইউনুস, ক্যাপ্টেন মোঃ হাসান, মোঃ দেলোয়ার হোসেন চৌধুরী, মোঃ আব্দুল লতিফ, মিসেস নিলুফার বানু, বাবু রাহুল চৌধুরী, মোঃ সিরাজুল ইসলাম চৌধুরী, মিসেস রাহেলা বি চৌধুরী, মোঃ জসিম উদ্দিন চৌধুরী, মোঃ কামাল উদ্দিন, ইঞ্জিনিয়ার হোসেন মুরাদ, মোঃ মাহাবুবুর রহমান দূর্জয়, মোঃ খায়ের আহম্মেদ সোহেল, অধ্যাপক মোঃ নাজিম উদ্দিন, এ এস এম রফিক উদ্দিন, এস এম আবছার উদ্দিন, মোঃ জাফর আহম্মদ, মোঃ মোজাফ্ফর আহম্মদ, মোঃ সেলিম উদ্দিন, মোঃ আলমগীর হোসেন, মওলানা মোঃ ইমরানুল হক সাইয়েদ, মোঃ জালাল উদ্দীন, মোঃ নুরুল ইসলাম, মোঃ কামাল উদ্দিন, মোঃ সোহরাব হোসেন, জোবাইদা আকতার, মিসেস নিলুফা ইয়াসমিন, মোঃ হেলাল উদ্দিন, মোঃ বদিউল আলম, বাবু রনজিৎ কুমার নাথ, মোঃ আবু জাফর, রফিক আহম্মদ, মোঃ গিয়াস উদ্দিন, মোঃ ইসতিয়াকুল হক, মোঃ ইউসুফ আলী রহমানী, মিসেস খুরশিদা আকতার, মোঃ আব্দুল মালেক, মিসেস আফরোজা বেগম, মোঃ সৈয়দ হোসেন, মোঃ নুরুল আলম, মোঃ শাহাবুদ্দিন ভুঁইয়া, মোঃ আব্দুল মোতালেব, মোঃ রুহুল আমিন, মিসেস সালমা পারভীন, মোঃ আল আমিন, মোঃ আব্দুল করিম, মিসেস নাসরিন আকতার, মোঃ সুজন, মোঃ আমিন উল্লাহ, মোঃ আব্দুল কাদের, মোঃ নুরুল আমিন, আফরোজা বেগম, নিগাত সুতানা প্রমুখ।
প্রধান অতিথির বক্তব্যে বাংলাদেশ কিন্ডারগার্টেন স্কুল এন্ড কলেজ ঐক্য পরিষদের চেয়ারম্যান এম ইকবাল বাহার চৌধুরী বলেন, আজ ৫ অক্টোবর বিশ্ব শিক্ষক দিবস। শিক্ষকদের অবদানকে স্বীকৃতি দেওয়ার জন্য ১৯৯৫ সাল থেকে ইউস্কোর মাধ্যমে সারা বিশ্বের ১০০টি দেশে এ দিবসটি পালিত হয়ে আসছে। দিবসটি উপলক্ষে ইউনোস্কো প্রতিবছর একটি স্লোগান প্রকাশ করে। এবারের স্লোগান হচ্ছে “শিক্ষা পুনরুদ্ধারের কেন্দ্রবিন্দুতে শিক্ষক”। স্লোগানটির মর্মার্থ যথদ্রুত উপলব্ধি হবে শিক্ষা পুনরুদ্ধারের সফলতা ততদ্রুতই অর্জিত হবে। করোনার কারণে গত বছর ১৭ মার্চ দেশের সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ ঘোষণা করা হয়। দীর্ঘ ৫৪৪ দিন পর গত ১২ সেপ্টেম্বর শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খোলা হয়। ফলে শিক্ষা পুনরুদ্ধারের মাধ্যমে ভবিষ্যত শিক্ষার রূপরেখা তৈরির এখনই উপযুক্ত সময়। এই ভবিষ্যত শিক্ষার-রূপকল্প প্রস্তুত করার জন্য শিক্ষকরাই অন্যতম ভূমিকা পালন করতে পারে। শিক্ষার হাতে খড়িতে কিন্ডারগার্টেনের ভূমিকা স্বীকৃত গুরুত্বপূর্ণ হলেও এ দেশে ৬০ হাজার কিন্ডারগার্টেন ও ১০ লক্ষ কিন্ডারগার্টেনের শিক্ষকরা সবচেয়ে বেশি অবহেলিত। অথচ এ কিন্ডারগার্টেনে প্রায় ১ কোটি শিক্ষার্থী পাঠদান করে থাকেন। কিন্ডারগার্টেগুলো শুধু শিক্ষার উন্নয়নে ভূমিকা রাখেনি, ১০ লক্ষ শিক্ষিত বেকারের কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা করেছে। এরা শুধু ১০ লক্ষ শিক্ষকই নয়, ১০ লক্ষ পরিবারও বটে। যে কাজটি সরকারকে বাধ্যতামূলক করতে হত সে কাজটি সরকারের কোন প্রকারের সহযোগিতা ছাড়া কিন্ডারগার্টেনের উদ্যোক্তা ও পরিচালকরা নিঃস্বার্থভাবে স্বাধীনতাত্তোর করে আসছে। যদি এ ১ কোটি শিক্ষার্থীকে সরকারের তত্ত্বাবধানে পাঠদান করতে হত তাহলে নতুন নতুন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান তৈরি, অবকাঠামো নির্মাণ, শিক্ষক নিয়োগ, শিক্ষকদের প্রশিক্ষণ, শিক্ষকদের বেতন ভাতাসহ সকল সুযোগ সুবিধা প্রধান করতে সরকারের কোটি কোটি টাকা ব্যয় হত। আজ আমাদের কারণে সরকারের এই ব্যয় সাশ্রয় হয়েছে। অত্যন্ত দুঃভাগ্যের বিষয় এই করোনা মহামারীতে সরকার কিন্ডারগার্টেন তথা শিক্ষকদের জন্য কোন প্রকার সহযোগিতা করেননি। যার কারণে কিন্ডারগার্টেন শিক্ষকরা অত্যন্ত মানবেতর দিন যাপন করছে। উল্লেখযোগ্য বিষয় হচ্ছে স্কুল খোলার পর আমরা প্রচ- শিক্ষক সংকটে ভুগছি। করোনাকালীন শিক্ষকদের দুরাবস্থা দেখে কেউ এই শিক্ষকতা পেশায় আর আসতে চাচ্ছে না। তাই আজকের বিশ্ব শিক্ষক দিবসে প্রতিপাদ্য বিষয়ের উপর গুরুত্ব আরোপ করে সরকারের প্রতি আহ্বান জানাচ্ছি কিন্ডারগার্টেন উদ্যোক্তাদের জন্য আর্থিক সহয়াতা ও সহজ শর্তে ব্যাংক লোনের ব্যবস্থা করুন এবং শিক্ষকদের জন্য প্রণোদনার ব্যবস্থা করে শিক্ষকতায় উৎসাহিত করুন।

Print Friendly, PDF & Email

Related Articles

Back to top button