৩ দিনের সফরে বাংলাদেশে ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ দূত

প্রথমবারের মতো ৩ দিনের সফরে বাংলাদেশে এসেছেন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসনের গার্লস এডুকেশন বিষয়ক বিশেষ দূত হেলেন গ্রান্ট। বাংলাদেশে এসে উচ্ছ্বাস প্রকাশ করেছেন তিনি। তবে বাংলাদেশের বাল্যবিয়ের উচ্চ হার নিয়ে হতাশা ব্যক্ত করেছেন তিনি।

এক টুইট বার্তায় ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ দূত লিখেছেন, দুঃখের বিষয় হচ্ছে, বাংলাদেশে ২৫ বছরের কম বয়সী অর্ধেকেরও বেশি নারীর ১৮তম জন্মদিনের আগে বিয়ে হয়ে যাচ্ছে। আজ আমি বাল্যবিবাহ রোধে কাজ করা তরুণ নেতাদের তাদের কমিউনিটিতে অবদানের অনুপ্রেরণামূলক গল্প শুনেছি।

সোমবার (২২ নভেম্বর) ঢাকার ব্রিটিশ হাইকমিশনের ভেরিফায়েড ফেসবুক পেজে ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ এ দূত বাংলাদেশে আসার খবর নিশ্চিত করেছেন। ব্রিটিশ হাইকমিশন জানায়, ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসনের গার্লস এডুকেশন বিষয়ক বিশেষ দূত বাংলাদেশ সফরে এসে উচ্ছ্বসিত। এ সফরে গ্রান্ট সুশীল সমাজের প্রতিনিধি, শিক্ষাবিদ এবং বাংলাদেশের নারীদের সঙ্গে, বিশেষ করে মানসম্মত শিক্ষার ক্ষেত্রে কী ধরনের চ্যালেঞ্জের মুখোমুখি হতে হচ্ছে সেসব অভিজ্ঞতার কথা শুনবেন।

সফরের শুরুতে জাগো ফাউন্ডেশন প্রতিষ্ঠিত স্কুলের শিক্ষার্থীদের সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ দূত। এ প্রসঙ্গে আরেক টুইটে গ্রান্ট লিখেছেন, জাগো ফাউন্ডেশন প্রতিষ্ঠিত স্কুলের শিক্ষার্থীদের সঙ্গে সাক্ষাৎ করেতে পেরে ভালো লাগছে। জাগো ফাউন্ডেশন বিশ্বাস করে, শিক্ষার সমতা নিশ্চিত করা গেলে একটি সুন্দর পৃথিবী গড়ে তোলা সম্ভব।

Print Friendly, PDF & Email

Related Articles

Back to top button