অবশেষে হাফিজের পিছলে যাওয়া বলে ছক্কা হাঁকানো নিয়ে মুখ খুললেন ওয়ার্নার

অস্ট্রেলিয়া-পাকিস্তানের টি-২০ বিশ্বকাপের সেমিফাইনালে মোহাম্মদ হাফিজের হাত পিছলে যাওয়া বলে ডেভিড ওয়ার্নারের একটি ছক্কা হাঁকানো অনেক সমালোচনা হয়েছে সদ্য শেষ হওয়া আসরে। বিষয়টি নিয়ে অবশেষে নিরবতা ভাঙলেন ডেভিড ওয়ার্নার।

ইনস্টাগ্রাম ভিডিওতে এক ব্যক্তির- ‘হাফিজের হাত থেকে ভুলে পড়ে যাওয়া বলে ছক্কা মারা’র  প্রশ্নের জবাবে অস্ট্রেলিয়ান ব্যাটারকে মাথা নেড়ে বলতে শোনা যায়, ‘এটা ভুলে পড়ে যায়নি। সে (হাফিজ) দেখার চেষ্টা করছিল আমি কী করি।  বল করার মধ্যে সে (হাফিজ) আবার থেমে দেখার চেষ্টা করছিল, আমি উইকেট থেকে উঠে আসি কিনা। এটাই ঘটেছিল।’ এতটুকুই জবাব দিয়েছেন ওয়ার্নার। যদিও সেই পিছলে যাওয়া বলে ছক্কার মারার বিষয়ে এই যুক্তি কতটুকু গ্রহণযোগ্য তা স্পষ্ট নয়।

এর আগে, এই ছক্কা মারার কারণে ওয়ার্নারের সমালোচনা করেন গৌতম গম্ভীরও। বিষয়টিকে তিনি লজ্জাজনক ও ক্রিকেটের স্পিরিটবিরোধী আখ্যা দেন। দেখা যায়, অস্ট্রেলিয়া ইনিংসের অষ্টম ওভার করেন হাফিজ। তবে প্রথম বল করতে গিয়েই দেখা দেয় বিপত্তি। ডেলিভারির সময় বল হাফিজের হাত থেকে পিছলে যায়। পিচে ২ বার ড্রপ করে বল পৌঁছয় ব্যাটসম্যান ডেভিড ওয়ার্নারের কাছে। ওয়ার্নার স্টেপ-আউট করে ছক্কা হাঁকান সেই বলে। ডেভিড এগিয়ে না এলে তার কাছে পৌঁছনোর আগে বল পিচে আরও কয়েকবার ড্রপ করত নিশ্চিত।

সাধারণত ব্যাটসম্যানরা ক্রিকেটের স্পিরিট মেনে এমন ক্ষেত্রে শট নেন না এবং আম্পায়ার ডেড-বল ঘোষণা করেন। তবে এক্ষেত্রে ব্যাটসম্যান শট নেওয়ায় আম্পায়ার বলটিকে নো-বল ঘোষণা করেন। ওয়ার্নারের এমন আচরণে বেজায় ক্ষেপে যান গম্ভীর।

 

Print Friendly, PDF & Email

Related Articles

Back to top button