চাউল দিয়ে তৈরী জনপ্রিয় পাপর পিঠা


মালিক উজ জামান, যশোর : যশোরের মণিরামপুর উপজেলা। সেখানে জনপ্রিয় হয়ে উঠছে চাউল দিয়ে তৈরী পাপর পিঠা। এক বিশেষ ধরনের ডিজেল চালিত মেশিনের মধ্যে যে কোন ধরনের চাউল দিলে ধবধবে সাদা লম্বা দড়ির মত এ পিঠা বেরিয়ে আসে। এ পিঠা কারিগররা সকাল থেকে সন্ধ্যা অবধি উপজেলার বিভিন্ন গ্রামাঞ্চলে মেশিন নিয়ে হাজির হন।
উপজেলার কুলিপাশা গ্রামে সড়কের পাশে একটি মেশিন ঘিরে বিভিন্ন বয়সী নারী-পুরুষের ভীড়। দেখা যায় মেশিনের মধ্যে একটি নল দিয়ে ধবধবে সাদা কিছু বেরিয়ে আসছে। নলের নীচে বড় পাতিল ধরে তা সংরক্ষণ করা হচ্ছে। এসময় কথা হয় পিঠা কারিগর মাহবুব হোসেন জানান, চীনের তৈরী এ মেশিনের মধ্যে বিশেষ ধরনের সাঁচ তৈরী করা হয়েছে। এ মেশিনসহ তিনি দেশের উত্তর অঞ্চলের নওগাঁ থেকে এসেছেন। তার মতো আরও ২৮ জন এসেছেন মনিরামপুরে। তারা এটিকে পেশা হিসেবে নিয়েছেন।
প্রতি কেজি চাউল দিয়ে পাপর পিঠা তৈরী করতে তারা ৪০ টাকা নিয়ে থাকেন। পাপর পিঠা বানানোর আগে পরিমান মত লবন ও তেল দিয়ে চাউল মেশানো হয়। এরপরে মেশিনে দেওয়া হয়। ওজনে হালকা এ পাপর পিঠা মেশিন থেকে বের হওয়ার পর তেলে ভেজে খাওয়ার উপযোগি হয়। তেলে ভেজা এ পাপর পিঠা মসলা দিয়ে মিশিয়েও খাচ্ছেন অনেকেই।
পাপর পিঠা বানাতে আসা উপস্থিত একাধিক নারী-পুরুষ জানান, ভাজা পাপর পিঠা চিনির সিরায় (পানি ও চিনির মিশ্রন) ভিজিয়ে খাওয়ার মজায় আলাদা। এ পিঠা তারা মেয়ের শ্বশুর বাড়িসহ নিকট আত্মীয়দের বাড়িতে পাঠাচ্ছেন। পাশাপাশি নিজেরা খাচ্ছেন।
মনিরামপুর উপজেলার মুড়োগাছা মদনপুরের সাবেক মেম্বর গ্রাম্য ডাক্তার মনছুর আহমেদ বলেন, নতুন নিয়মে স্বল্প সময়ে কম খরচের পাপড় পিঠা বেশ জনপ্রিয় হয়েছে। আমরা তারিফ করছি এই উগ্যোগের।

Print Friendly, PDF & Email

Related Articles

Back to top button