অবসরপ্রাপ্ত ১৬০ শিক্ষককে সংবর্ধনা ও সম্মাননা দিলেন মহেশখালী পেশাজীবী সমিতি

জে.জাহেদ, চট্টগ্রাম প্রতিনিধি:

শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান হলো মানুষ গড়ার সূতিকাগার, আর একজন শিক্ষক হলেন সেখানকার কারিগর। তিনি সেই ব্যক্তি, যিনি সুনিপুণ দক্ষতায় একজন মানুষকে মানুষ হিসেবে সুপ্রতিষ্ঠিত করতে অগ্রণী ভূমিকা রাখেন। প্রাণী জগতের অন্যান্য প্রাণীর চেয়ে আলাদা হিসেবে বোধশক্তি জাগ্রত করণে এই শিক্ষকরাই রাখেন অবিরাম ভূমিকা।

সম্প্রতি কক্সবাজারে এমনই অবসরপ্রাপ্ত ১৬০ শিক্ষককে সংবর্ধনা ও সম্মাননা প্রদান করেছেন মহেশখালী পেশাজীবী সমিতি লিমিটেড।

শুক্রবার (৩১ ডিসেম্বর) সকাল ১১টায় কক্সবাজারে দ্বীপ উপজেলার মহেশখালী মডেল হাই স্কুল মাঠে এ অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়।

মোস্তাফা জুয়েলের সঞ্চালনায় ও মহেশখালী পেশাজীবী সমিতি লিমিটেডের সভাপতি ও অতিরিক্ত সচিব আবুল হাশেমের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক ভিসি, পরিবেশ বিজ্ঞানী ও বিভিন্ন স্তরের শিক্ষা প্রতিষ্ঠান থেকে অবসরপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ, সুপার, প্রভাষক, প্রধান শিক্ষক, সহকারী শিক্ষকসহ অবসরপ্রাপ্ত ১৬০ জন সম্মানিত শিক্ষকদের ক্রেস্ট ও উপহার দিয়ে সংবর্ধনা প্রদান করা হয়।

প্রধান আলোচকের বক্তব্যে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের ভাইস চ্যান্সেলর ড. শিরীণ আখতার বলেন, অপার সম্ভাবনাময় এই দ্বীপে সরকারের বিশেষ নজর থাকার কারণে এই দ্বীপটি নতুনভাবে সাজানো হচ্ছে। দ্বীপটির প্রাকৃতিক সম্পদের সঙ্গে সমন্বয় রেখে সোনাদিয়া ইকো ট্যুরিজম পার্ক, ধলঘাটা অর্থনৈতিক অঞ্চল, এসপিএম প্রকল্প এবং মাতারবাড়ি কয়লা বিদ্যুৎ প্রকল্প এ দ্বীপকে বিশ্বের দরবারে অনেক এগিয়ে নিয়ে যাবে। এই দ্বীপের মানুষের ভাগ্য পরিবর্তন হতে খুব বেশি দেরি নেই।

অবসরপ্রাপ্ত সম্মানিত শিক্ষকদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করে তিনি আরও বলেন, প্রাথমিক স্তর থেকে শুরু করে উচ্চস্তর পর্যন্ত সকল শিক্ষকগণ আমাদের জাতি গঠনে যে অক্লান্ত পরিশ্রম করে যাচ্ছে, এ পরিশ্রমের কারণেই আজ আমি, আমরা সবাই উচ্চ শিখরে আরোহণ করার সুযোগ পেয়েছি। শ্রদ্ধা চিত্তে সকল শিক্ষকদের প্রতি বিনীত সম্মান জ্ঞাপন করছি। তিনি স্থানীয় সাংসদ আশেক উল্লাহ রফিকের দৃষ্টি আকর্ষণ করে মহেশখালীবাসীর একান্ত দাবি মহেশখালী-কক্সবাজার সেতু যেন দ্রুত বাস্তবায়ন করা হয় সেজন্য দৃঢ় প্রস্তাব এবং কার্যক্রম চালিয়ে যাওয়ার অনুরোধ করেন।

মহেশখালীর সন্তানদের নিয়ে গঠিত মহেশখালী পেশাজীবী সমিতি লিমিটেডের আয়োজনে এই অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন মহশেখালী-কুতুবদিয়ার সংসদ সদস্য আশেক উল্লাহ রফিক এমপি, প্রধান আলোচক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের সম্মানিত ভাইস চ্যাঞ্চেলর ড. শিরীণ আখতার, উক্ত অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন কক্সবাজার জেলা প্রশাসনের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা), জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার, মহেশখালীর কৃতিসন্তান অতিরিক্ত জেলা জজ এরফান উল্লাহ, মহেশখালীর কৃতিসন্তান সহযোগী অধ্যাপক ডাক্তার ফাহমিদা আক্তার, মহেশখালীর কৃতিসন্তান চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের রাজনৈতিক বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক মুহাম্মদ ইসহাক ও সদ্য বিদায়ী উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. মাহফুজুর রহমান।

এছাড়াও অনুষ্ঠানে আমন্ত্রিত অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ কক্সবাজার জেলার উপদেষ্টার ডাক্তার নুরুল আমিন, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ কক্সবাজার জেলার সহ-সভাপতি এম আজিজুর রহমানসহ রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের প্রধান ও সমিতির সকল সদস্যবৃন্দ।

Print Friendly, PDF & Email

Related Articles

Back to top button