‌‘ভূতের’ ভয়ে মিলাদ পড়ানো হলো মহিলা কলেজের হোস্টেলে

কুমিল্লা সরকারি মহিলা কলেজের পাশেই হোস্টেল। বেশ কয়েকদিন ধরে এই কলেজ হোস্টেলের মেয়েদের মধ্যে ‘ভূতের’ আতঙ্ক বিরাজ করছে। রাত হলে তারা অদ্ভুত শব্দ শুনতে পান। এ আওয়াজ সহজে বন্ধ হয় না। অদ্ভুত শব্দে গা শিউরে ওঠে ছাত্রীদের। আওয়াজ শুরু হলে রাতে সবাই জবুথবু হয়ে বসে থাকেন। এ অবস্থা চলতে থাকার একপর্যায়ে সোমবার সন্ধ্যায় হুজুর ডেকে হোস্টেলে মিলাদ পড়ানো হয়।

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, হোস্টেলটির একটি ভবন পরিত্যক্ত অবস্থায় রয়েছে। নড়বড়ে ভবনটিতে বৃষ্টি হলে পানি ঢুকে পড়ে। বাতাস ও ভূমিকম্প হলে সবাই আঁতকে ওঠেন। অপরদিকে হোস্টেলের পূর্বদিকে বখাটেদের আনাগোনা রয়েছে। নবাব বাড়ি ও এর আশপাশে প্রায়ই প্রকাশ্যে গাঁজা খায় তারা। রাতেও সেখানে তাদের উৎপাত রয়েছে। যার কারণে শিক্ষার্থীরা অদ্ভুত শব্দ শুনে থাকতে পারে বলে অনেকের ধারণা।

বেশ কয়েকজন ছাত্রী কলেজ অধ্যক্ষের কাছে এ সমস্যার সমাধান চেয়েছেন বলে জানা গেছে। তবে কিছু ছাত্রীর ধারণা, এখানে আসলেই ‘ভূতের’ উৎপাত আছে!

কলেজ অধ্যক্ষ প্রফেসর জামাল নাছের জানান, মেয়েরা ভয় পায়, তাই মিলাদ পড়িয়েছি। পরিত্যক্ত ভবন ও বখাটেদের উৎপাতের বিষয়টি সঠিক নয় বলে তিনি মন্তব্য করেন ।

Print Friendly, PDF & Email

Related Articles

Back to top button